Home / রান্নাবান্না / একটু যত্নেই বাগানে হবে চমৎকার পুদিনার চাষ

একটু যত্নেই বাগানে হবে চমৎকার পুদিনার চাষ

রান্নাবান্নায় অথবা পানীয় তৈরিতে পুদিনা পাতা ব্যবহার করেন অনেকেই। নিয়মিত ব্যবহার করতে হয় বলে অনেকেই পুদিনার চাষ করার কথা ভাবেন।  জেনে রাখুন পুদিনা চাষের ছোট ছোট কিছু নিয়ম।

পুদিনার যত্ন

বেশিরভাগ সময়ে বাজার থেকে আনা পুদিনার শেকড়টি যত্ন করে টবে পুঁতে দিলে তা থেকেই পুদিনার চমৎকার গাছ হয়ে যায়। ভালো মানের পুদিনা পেতে হলে নার্সারি থেকে চারা বা বীজ কিনে আনতে পারেন।

পুদিনা চাষের জন্য সবচেয়ে ভালো উপায় হলো একে আলাদা একটি টব দিয়ে দেওয়া। বাগানে বা অন্য কোনো গাছের টবে পুদিনা গাছ না রাখাই ভালো। অনুকুল পরিবেশ পেলে পুদিনা গাছটি ছড়িয়ে মাটি ঢেকে ফেলবে। তাই একে মাঝারী আকারের একটি টবে আলাদা করে রোপণ করুন।

পুদিনার টব এমন জায়গায় রাখুন যেখানে সকালের হালকা রোদ আসে এবং বিকেলে ছায়া থাকে।  কড়া রোদে না রাখাই ভালো। অনেকের বারান্দাতেই এসির আউটলেট থাকে অর্থাৎ গরম বাতাস আসে। এমন জায়গায় পুদিনা রাখবেন না যেখানে সে এমন শুকনো, গরম বাতাস পায়।

পুদিনা সংগ্রহ

রান্না বা চা বানানোর প্রয়োজনে কাঁচি দিয়ে কেটে নিতে পারেন পুদিনার ডাল। এছাড়া বেশি করে পুদিনা পাতা নিতে হলে মাটির এক ইঞ্চি ওপর থেকে কেটে নিতে পারেন। গাছে ফুল আসার আগে পর্যন্ত পুদিনার পাতার স্বাদ ও গন্ধ ভালো থাকবে। পুদিনা পাতার ফলন বাড়াতে চাইলে গাছে ফুল এলে তা দ্রুত ছেঁটে ফেলুন। 

পুদিনা টাটকা ব্যবহার করুন। পরে ব্যবহারের জন্য রেখে দিতে চাইলে একসাথে আঁটি বেঁধে উল্টো করে ঝুলিয়ে দিন, শুকিয়ে গেলে সংরক্ষণ করুন। এছাড়া প্লাস্টিক ব্যাগে করে ডিপ ফ্রিজেও সংরক্ষণ করতে পারেন।

পুদিনার ব্যবহার

পুদিনা পাতার চা যুগ যুগ ধরেই পেটের সমস্যার ঘরোয়া সমাধান হিসেবে সমাদৃত। বিভিন্ন কাবাব রান্নায় পুদিনা পাতা ব্যবহার করা হয়। এছাড়াও ভারতীয় বিভিন্ন রান্নায় পুদিনা ব্যবহার হয়। গরমকালে বিভিন্ন পানীয় তৈরিতে পুদিনা ব্যবহার করা যায়।

About admin

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *